থাই স্কুলের মেয়েরাও পরিধান করবে হিজাব!

24

মুসলিম নারী-পুরুষদের জন্য পর্দা করা ফরজ। সে আলোকে মুসলমান মেয়েরা স্কুল জীবন থেকে হিজাব পরিধান করে পর্দা শুরু করে। থাইল্যাণ্ডের পট্টানি প্রদেশের একটি স্কুল মুসলিম মেয়ে শিক্ষার্থীদের হিজাব পরিধানে নিষেধাজ্ঞা জারি করে।

মুসলিম অভিভাবকরা দক্ষিণ থাইল্যান্ডের সাংখলা প্রাদেশিক আদালতে অনুবান পাট্টানি স্কুলে মুসলিম মেয়েদের হিজাব পরিধানের অনুমতি চেয়ে আবেদন করে। আদালত মুসলিম অভিভাবকদের আবেদনের প্রেক্ষিতে সেই স্কুলের মেয়েদের হিজাব পরিধানের অনুমতি প্রদান করে। খবর ন্যাশনাল মাল্টিমিডিয়া।

গত ২৯ অক্টোবর ধর্মীয় বিশ্বাস অনুযায়ী পোশাক পরিধানের অধিকার রক্ষায় ২০ মেয়ে শিক্ষার্থীর বাবা আদালতে স্কুলের নিষেধাজ্ঞার ওপর অভিযোগ প্রদান করে।

মেয়ে শিক্ষার্থীদের বাবা-মা বলেন, তাদের মেয়েদেরকে হিজাব পরিধানের কারণে শাস্তি দেয়া হয়েছে।

এ স্কুলটি পট্টানি প্রদেশের মুয়াং জেলার একটি বৌদ্ধ মন্দিরের ভেতরে অবস্থিত। অবশেষে আদালতের রায়ে স্কুলের কর্তৃপক্ষ মুসলিম মেয়েদের হিজাব পরিধানের বিষয়টি স্কুল কোর্ড হিসেবে গ্রহণ করেছে।

যদিও থাইল্যান্ডের ডেপুটি শিক্ষামন্ত্রী লে. জে. সুরচেত চৈওয়ংও মুসলিমদের জন্য হিজাব পরিধান কোর্ড চালু করতে বিরোধিতা করেন। তবে প্রশাসনিক আদলতে তাদের এ আদেশের চ্যালেঞ্জ সম্ভাবনা এখনও রয়ে গেছে।