তথ্য চুরি রোধে ব্যক্তিত্ব যাচাইয়ের অ্যাপ নিষিদ্ধ করল ফেসবুক

125

ফেসবুক থেকে কোটি কোটি ব্যবহারকারীর তথ্য চুরি হয়ে যায়। কয়েক বছর আগে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা স্ক্যান্ডেলের পর সামনে আসে বিষয়টি। তারপর এ নিয়ে কড়া পদক্ষেপ নিল ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

ফেসবুকে যে ব্যক্তিত্ব যাচাইয়ের লিঙ্কগুলি আসে, এবার সেগুলিকে তারা একদম নিষিদ্ধ ঘোষণা করল। কারণ এই ধরনেরই একটি অ্যাপ থেকে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের তথ্য চুরি করা হয়েছিল বলে অভিযোগ ওঠে।

উল্লেখ্য, ওই অ্যাপগুলির যে লিঙ্ক দেওয়া হত, সেখানে ক্লিক করলে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের সকল তথ্য চাওয়া হত। না হলে ওই লিঙ্ক কাজ শুরু করত না। ফলে অনেকেই ব্যক্তিত্ব যাচাইয়ের নেশায় ওই অ্যাপে ফেসবুকে থাকা সকল তথ্য দিয়ে দিতেন।

এভাবেই তথ্য চুরি হয়ে যেত। এর জন্য ফেসবুককেই দায়ী করেছেন অনেকে। তাদের বক্তব্য, ফেসবুক ওই সময় তথ্য চুরি আটকাতে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। ওই তথ্যগুলি কোথায় ব্যবহার হবে, তা নিয়ে স্পষ্ট নির্দেশিকা থাকলে আর সমস্যা হত না।

যদিও আগেই ফেসবুকের তরফে জানানো হয়েছিল, গ্রাহকদের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে একাধিক কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে। সেই অনুযায়ী এক এক করে ফেসবুককে আরও সুরক্ষিত করা হচ্ছে।